July 30, 2021, 1:55 pm

creativesoftbd.com
শিরোনামঃ

চাকরিতে ৩০ শতাংশ মুক্তিযোদ্ধা কোটা পুনর্বহালের দাবি সারা দেশ অবরোধের ঘোষণা

।। সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট।।

ঢাকা: প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণী চাকরিতে  মুক্তিযোদ্ধা সন্তান ও পোষ্যদের জন্য ৩০ শতাংশ কোটা বহাল চেয়ে রোববার থেকে সারাদেশে অনির্দিষ্টকালের জন্য অবরোধের ডাক দিয়েছে ‘মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ’। কোটা ব্যবস্থা বাতিলের পরিপত্রকে ‘স্বাধীনতাবিরোধী’ আখ্যা দিয়ে আগামী মন্ত্রিসভায় কোটা ব্যবস্থাকে পুনর্বহালের দাবিও জানিয়েছে সংগঠনটি।

শনিবার বিকেলে শাহবাগে এক সমাবেশ থেকে এ ঘোষণার পাশাপাশি স্থলপথ, জলপথ ও আকাশপথ অবরোধের আহ্বান জানিয়েছেন সংগঠনটির মুখপাত্র ঢাবির সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক আ ক ম জামাল উদ্দিন।

এর আগে কোটা বাতিলে মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্ত অনুমোদনের পর মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযুদ্ধ সন্তান সংসদ কমান্ড ও আরও কয়েকটি সংগঠন বুধবার রাতে শাহবাগ মোড় অবরুদ্ধ করে। শুক্রবার মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা থাকায় কর্মসূচি শিথিল করে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫১তম সমাবর্তন উপলক্ষে শুক্রবার রাত ১২টা থেকে শনিবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত অবরোধ স্থগিত রাখা হয়।

পূর্বঘোষিত সমাবেশ উপলক্ষে শনিবার বেলা ৩টার দিকে আবারো শাহবাগ মোড় অবরুদ্ধ করে সারাদেশ থেকে আগত মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান ও তাদের পোষ্যদের কয়েকটি সংগঠন। শাহবাগ মোড় অবরুদ্ধ থাকায় আশপাশে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।

বেলা তিনটায় সমাবেশের ঘোষণা দেওয়া হলেও বৃষ্টির কারণে বেলা ৪টার পর সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বৃষ্টির মধ্যেই মঞ্চের নেতারা শাহবাগ মোড় অবরোধ করে বসে থাকে। বৃষ্টি থামার পর রাজধানীর আশপাশ ও দেশের বাইরে থেকে  একাধিক মিছিল আসলে সমাবেশ শুরু হয়।

রাজধানীর বাইরে থেকে আসা মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের প্রতিনিধি ও মুক্তিযোদ্ধা, তাদের সন্তানরা ৩০ শতাংশ কোটা ফিরিয়ে দিয়ে নতুন প্রজ্ঞাপন ও কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপন প্রত্যাহার চেয়ে বক্তব্য ও  স্লোগান দেন।

মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের আহ্বায়ক আ ক ম জামাল উদ্দিন বলেন, ‘কোটা বাতিলের পরিপত্র মন্ত্রিসভায় বাতিল না করা পর্যন্ত আমাদের কর্মসূচি চলবে। সারাদেশেই অনির্দিষ্টকালে ধর্মঘট ও অবরোধ চলবে। নৌ, সড়ক ও রেলপথেও অবরোধ চলবে। আগামী সপ্তাহে মন্ত্রিসভায় ঘোষিত পরিপত্র বাতিল করতে হবে। আর এটি করা না হলে আমাদের আন্দোলনও চলবে।’

মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের সন্তানদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘আপনারা আর কেউ ঘরে বসে থাকবেন না। সড়ক, মহাসড়ক, রেলপথ ও নৌ-পথ অবরোধ করুন। দাবি আদায় না হওয়ায় পর্যন্ত অবরুদ্ধ রাখুন। আমরা দেশ ও দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বে অতন্দ্রপ্রহরী। আন্দোলন চললে সরকার দাবি মেনে বাধ্য হবে।’

সমাবেশ থেকে ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু, একাত্তরের হাতিয়ার, গর্জে উঠ আরেকবার, জামায়াত শিবির-রাজাকার এ মুহূর্তে বাংলা ছাড়, ৩০% কোটা বাতিল মানি না, মানব না, বীর বাঙালি হাতিয়ার, গর্জে ওঠো আরেকবার প্রভৃতি স্লোগানে দেওয়া হয়।

এদিকে, অবরোধের কারণে শাহবাগ-প্রেসক্লাব-সাইন্সল্যাব-ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় প্রথম দিকে যানজট থাকলেও পরে তারা ভিন্ন রাস্তা দিয়ে ঘুরে চলাচল শুরু করে। এতে এই রাস্তাগুলো গাড়ি শূন্য দেখা যায়। রাত আটটায় এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত শাহবাগে তাদের অবরোধ চলছিল।

creativesoftbd.com

     আজকের খবর বিডি কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

  

জরুরি সেবা ফোন নাম্বার