June 24, 2021, 3:55 am

creativesoftbd.com

বাংলাদেশ কি স্বাধীন হয়েছে ভারতকে সবকিছু উজাড় করে দিয়ে দেবার জন্য -ড. তুহিন মালিক

প্রসঙ্গঃ বাংলাদেশ কি স্বাধীন হয়েছে ভারতকে বন্দরসহ সবকিছু উজাড় করে দিয়ে দেবার জন্য ?
————————————————
ভারতকে বাংলাদেশের দুটি বন্দর ব্যবহার করার অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।এই সিদ্ধান্তের ফলে তাদের জিনিসপত্র আনার খরচ প্রায় আশি শতাংশ কমে যাবে।কলকাতা থেকে এক হাজার ৫৫৯ কিলোমিটার দূরত্বের আগরতলায় এতদিন যে পণ্য পরিবহনে সময় লাগত আট দিন, এখন তা মাত্র কয়েক ঘণ্টায় পৌঁছে যাবে আগরতলায়।

ভারতকে সবই তো দিয়ে দিলাম! অথচ বিনিময়ে আমরা কি এখনও চাতক পাখির মতো ভারতের কাছ থেকে একফোঁটা তিস্তার ন্যায্য পানির জন্য তাকিয়ে থাকবো? কেন, কার স্বার্থে, কোন প্রলোভনে, আমরা নিজেদের স্বার্থটা এভাবে বিলিয়ে দিচ্ছি? যেখানে প্রধানমন্ত্রীকে পর্যন্ত বলতে হয়, “ভারতকে যা দিয়েছি তা আজীবন মনে রাখবে !

দুই দেশের সরকার বলছে, এটা আন্তঃরাষ্ট্রীয় যোগাযোগব্যবস্থার উন্নয়ন। অথচ আমরা তো শুধু দেখছি, এই যোগাযোগ বলতে শুধুই ভারতের মূল ভূখণ্ডের সাথে পূর্বের সাত রাজ্যের সহজতম যোগাযোগের উন্নয়ন। তাহলে আমাদেরটা গেল কোথায় ?

বাংলাদেশের কাছ থেকে প্রত্যাশার চাইতেও শতগুন বেশী পেয়েছে ভারতীয়রা। বিনিময়ে আমরা শুধু আশ্বাসই পেয়েছি ভুঁরিভুঁরি। আর পেয়েছি ৫ই জানুয়ারির মত গনতন্ত্রের হত্যাযজ্ঞের সমর্থন! ভারত প্রতিবেশীর ন্যায্য অধিকারকে গুরুত্ব না দিয়ে নিজেদের দপাওয়াটাকেই বড় করে দেখতে গিয়ে পুরো বাংলাদেশটাকে মৃত্যুপুরি বানিয়ে দিতে সাহায্য করে যাচ্ছে ! আর আমাদের গনতন্ত্র ও রাজনীতিকে দৈন্য বানিয়ে যথেচ্ছভাবে একের পর এক সবটুকু লুটে নিচ্ছে !

ফলশ্রুতিতে আমাদের জাতীয় স্বার্থে ও আমাদের ন্যায্য দাবি আদায়ে দেশে এখন কোনো শক্তিরই আর অস্তিত্ব নেই, যে জাতীয় স্বার্থে এগুলোর প্রতিবাদ করবে। ক্ষমতায় থাকা আর ক্ষমতায় যাওয়া, এই দুইয়ের লোভে পড়ে সবাই যেন জাতীয় স্বার্থে মুখ খুলতেও চরমভাবে নারাজ।

সাবেক পূর্ব পাকিস্তানে, যা বর্তমানে বাংলাদেশ, কোনো সমুদ্রবন্দর ছিল না। তৎকালীন পাকিস্তান সরকার ছয় মাসের জন্য ভারত সরকারের কাছ থেকে কলকাতা বন্দর ব্যবহারের অনুমতি চেয়েছিল। ভারত সরকার তখন প্রত্যুত্তরে বলেছিল, ছয় মাস কেন, ছয় ঘণ্টার জন্যও কলকাতা বন্দর ব্যবহার করতে দেয়া হবে না। তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তান অর্থাৎ আজকের বাংলাদেশকে কলকাতা বন্দর ব্যবহারের সব প্রস্তাবকে তীব্রভাবে প্রত্যাখ্যান করেছিল ভারত সরকার। অথচ সেই বাংলাদেশ কি স্বাধীন হয়েছে ভারতকে বন্দরসহ তার সবকিছু উজাড় করে দিয়ে দেবার জন্য?
লেখক- -ডক্টর তুহিন মালিক, সুপ্রিম কোর্টের আইনজ্ঞ ও সংবিধানবিশেষজ্ঞ।।

(লেখকের ফেসবুক টাইমলাইন থেকে সংগৃহীত)

creativesoftbd.com

     আজকের খবর বিডি কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

  

জরুরি সেবা ফোন নাম্বার