June 19, 2021, 12:12 am

creativesoftbd.com

বিএনপি জয় ধরে রাখতে চায় পুনরুদ্ধারে মরিয়া আ.লীগ

ঢাকা : গাজীপুর সিটি করপোরেশন (গাসিক) নির্বাচন ঘিরে বইছে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের উত্তাপ। রাজধানী ঢাকার অদূরে এ সিটির ভোট আগামী ১৫ মে। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও তাদের প্রধান রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ বিএনপি সমান গুরুত্ব দিচ্ছে এ সিটির মেয়র পদের ভোটাভুটি।

গত নির্বাচনে দল-সমর্থিত প্রার্থীর ভরাডুবি হলেও এবার জয় পেতে মরিয়া আওয়ামী লীগ। নির্বাচনী পারদে দলের জনপ্রিয়তার মাত্রা দেখাতে চায় ক্ষমতাসীন দল।

অন্যদিকে দ্বিতীয়বারের মতো মেয়র পদ ধরে রাখতে চায় বিএনপি। জয়ী হলে দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি, একাদশ নির্বাচনে নিরপেক্ষ সরকার গঠনসহ বিভিন্ন দাবিতে চলমান আন্দোলনের গতি বাড়বে বলেও মনে করেন দলটির নেতাকর্মীরা।

জয় শতভাগ নিশ্চিতে আওয়ামী লীগ-বিএনপি উভয়েই একক প্রার্থী দিতে মরিয়া। আনুষ্ঠানিক প্রার্থী ঘোষণার আগে মাঠে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির একাধিক প্রার্থী থাকলেও অ্যাডভোকেট আজমত উল্লা ও বর্তমান মেয়র অধ্যাপক আবদুল মান্নানের প্রতিই মৌন সমর্থন রাখছেন তারা। শেষ পর্যন্ত দুই বড় জোটের একক প্রার্থী হিসেবে পুরনো দুজনের হাতেই দলীয় প্রতীক তুলে দেওয়া হবে- এমন আভাস দিয়েছেন দলগুলোর কেন্দ্রীয় নেতারা।

নির্বাচনে মাঠে তৎপর সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টিও। নির্বাচনী প্রতীক হারালেও থেমে নেই জামায়াত। স্বতন্ত্রভাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে চায় তারা।
ইতোমধ্যে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন সংগঠনটির সম্ভাব্য প্রার্থী। বড় দলগুলোর পাশাপাশি ভোটের লড়াইয়ে নেমেছেন অন্যান্য রাজনৈতিক দল ও ব্যক্তি প্রার্থীও। ইসলামী আন্দোলন ইতোমধ্যে প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছে।

নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র উত্তোলন ও জমা দাখিল ১২ এপ্রিল। যাচাই-বাছাই ১৫-১৬ এপ্রিল। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ২৩ এপ্রিল। ২৪ এপ্রিল প্রতীক বরাদ্দ। ভোট গ্রহণ আগামী ১৫ মে।

এদিকে কমিশনের সঙ্গে মিলিয়ে দলের তরফেও মনোনয়নপত্র বিতরণসহ অন্যান্য সময়সূচি ঘোষণা করা হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে বিএনপির সাত নেতা মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। শুক্রবার (৬ এপ্রিল) মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন আগ্রহীরা।

আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রক্রিয়া ভিন্ন। আবেদনপত্র সরবরাহ করবে দলটি। উত্তোলন ও জমা আজ শনিবার পর্যন্ত। জাপার প্রার্থী নির্বাচন পার্টির চেয়ারম্যানের সিদ্ধান্তের ওপর। জামায়াতের একজন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছে দলীয় সিদ্ধান্তেই।

আওয়ামী লীগ ও বিএনপির আগ্রহী প্রার্থীদের সাক্ষাৎকার আগামীকাল ৮ এপ্রিল। নিজ নিজ দলের মনোনয়ন বোর্ড এ সাক্ষাৎ নেবে। বিএনপির সাক্ষাৎকার দলের চেয়ারপারসনের গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে। আওয়ামী লীগের আগ্রহী প্রার্থীদের সাক্ষাৎ হবে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে।

এদিকে জাতীয় পার্টির নেতৃত্বাধীন ৫৮-দলীয় সম্মিলিত জাতীয় জোটের (ইউএনএ) ব্যানারে একক প্রার্থী দিতে চায়। লাঙ্গল প্রতীক মনোনয়ন আলোচনায় জোটের দুই প্রার্থী। একজন দলের চেয়ারম্যানের স্বাস্থ্যবিষয়ক উপদেষ্টা এমএম নিয়াজ উদ্দিন ভূইয়া, অন্যজন কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও গাজীপুর মহানগর সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাহমুদ আল মামুন। নির্বাচনে দল অংশ নিলে জাপা নেতৃত্বাধীন ইউএনএ জোট প্রার্থী হবেন নিয়াজ উদ্দিন ভূঁইয়া। তাকে সবুজসঙ্কেত দিয়েছেন পার্টির চেয়ারম্যান।

গত নির্বাচনে জাপা মনোনীত প্রার্থী ব্রিগেডিয়ার (অব.) কাজী মাহমুদ হাসান মনোনয়ন প্রত্যাহার করে আওয়ামী লীগকে সমর্থন দিয়েছিলেন। জোটের শরিক হিসেবে শেষ পর্যন্ত এবারো আওয়ামী লীগের সঙ্গে সমঝোতায় যেতে পারে সংসদের প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টি। এমন আভাস-ইঙ্গিত দলের একাধিক নেতার।

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) গাজীপুর মহানগরের সভাপতি রাশেদুল হক রানা ও ইসলামী ঐক্যজোটের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও হেফাজতে ইসলামের গাজীপুরের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ফজলুর রহমান। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের হয়ে মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন জেলা ইসলামী আন্দোলনের সভাপতি হাফেজ মাওলানা নাসির উদ্দিন। গত বৃহস্পতিবার শ্রমিক সমাবেশে তার নাম ঘোষণা করেছেন দলের নায়েবে আমির মুফতি সৈয়দ ফজলুল করীম।

creativesoftbd.com

     আজকের খবর বিডি কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

  

জরুরি সেবা ফোন নাম্বার