June 21, 2021, 5:06 am

creativesoftbd.com

বিমান দুর্ঘটনায় আহত ৪ জন ফিরছেন দেশে

নেপালে ইউএস-বাংলার আহত ৭ যাত্রীর বিষয়ে ছাড়পত্র দিয়েছে কাঠমান্ডুর একাধিক হাসপাতাল। এ ৭ জনের মধ্যে উন্নত চিকিৎসার জন্য দুইজনকে ভারতে, একজনকে সিঙ্গাপুর এবং বাকি চারজনকে শিগগিরই বাংলাদেশে পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। নেপালের বাংলাদেশ মিশন থেকে এক বার্তায় বৃহস্পতিবার এ তথ্য জানান হয়েছে।

নেপালের মিশন থেকে পাঠানো বার্তায় উড়োজাহাজ দুর্ঘটনায় চিকিৎসা নেওয়া ১০ জন বাংলাদেশির সর্বশেষ তথ্য জানান হয়। সর্বশেষ প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, নেপালের নরভিক হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়া ইয়াকুব আলী বর্তমানে আইসিইউতে আছেন। তার ভাই দিপু বেপারী তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ভারত নিয়ে যাচ্ছেন। হাসপাতাল কর্তৃপকক্ষ ইয়াকুব আলীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ভারত যাওয়ার অনুমতিপত্র দিয়েছে।

কাঠমান্ডু মেকিকেল কলেজে চিকিৎসা নেওয়া ইমরানা কবির হাসিও আইসিইউতে আছেন। তার বেড নম্বর ৫০২। ইমরানা কবির হাসিকে উন্নত চিকিৎসা দেওয়ার জন্য ভারতের দিল্লিতে নেওয়া হচ্ছে।

নেপালের ওএম হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসা নিচ্ছেন মো. রেজওয়ানুল হক। তাকে উন্নত চিকিৎসা সেবা দেওয়ার জন্য সিঙ্গাপুরে নেওয়ার অনুমতিপত্র দিয়েছে ওএম হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

ইউএস-বাংলার মহাব্যবস্থাপক কামরুল ইসলাম জানিয়েছেন, রেজওয়ানুলকে বুধবার রাতে সিঙ্গাপুর পাঠানো হয়েছে। তিনি সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

কাঠমান্ডুর একাধিক হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়া ১০ বাংলাদেশির মধ্যে ৪ জনকে অতি দ্রুত ঢাকায় এনে চিকিৎসা দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ ৪ জন হলেন শাহরিন আহমেদ, মেহেদি হাসান, সৈয়দা কামরুন্নাহার স্বর্ণা এবং আলমুন নাহার এ্যনি। এই ৪ জনের মধ্যে শাহরিন আহমেদকে তার ভাই লে. কর্নেল সরফরাজ আহমেদের তত্ত্বাবধানে ঢাকায় আসার অনুমতি দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

এছাড়া ১০ বাংলাদেশির মধ্যে বাকি ৩ জনকে আপাতত নেপালের হাসপাতালেই চিকিৎসা দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ তিনজন হলেন কাঠমান্ডু মেকিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটের ৪৭৭ নম্বর বেডে চিকিৎসা নেওয়া শাহিন বেপারি, আইসিইউর ৫০১ নম্বর বেডে চিকিৎসা নেওয়া মো. কবির হোসেন এবং আইসিইউর ৫০৩ নম্বর বেডে চিকিৎসা নেওয়া মো. শেখ রাশেদ রুবায়েত।

creativesoftbd.com

     আজকের খবর বিডি কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

  

জরুরি সেবা ফোন নাম্বার